১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ 26 May 2024

ইইএফ উইং

ভূমিকা

ঝুঁকিপূর্ণ কিন্তু সম্ভাবনাময় খাদ্যপ্রক্রিয়াজাতকরণ ও কৃষিভিত্তিক শিল্প এবং আইসিটি শিল্প প্রকল্পে বিনিয়োগ উদ্বুদ্ধকরণের লক্ষ্যে ২০০০-২০০১ অর্থ বছরে ১০০ কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দের মাধ্যমে কৃষি ও আইসিটি খাতে নতুন উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে ইক্যুইটি এন্ড অন্ট্র্যাপ্র্যানারশীপ ফান্ড (ইইএফ) গঠন করা হয়। এ লক্ষ্যে সরকার ও বাংলাদেশ ব্যাংকের মধ্যে ২৬/১২/২০০০ তারিখে স্বাক্ষরিত এজেন্সী চুক্তির সূত্রে এ তহবিলের সার্বিক ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব বাংলাদেশ ব্যাংকের উপর অর্পিত হয়।
ইইএফ এর অপারেশনাল কার্যক্রম সম্পাদনের নিমিত্তে ০১/০৬/২০০৯ তারিখে বাংলাদেশ ব্যাংক ও আইসিবি’র মধ্যে একটি সাব-এজেন্সী চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এ চুক্তির আওতায় নীতিমালা প্রণয়ন, তহবিল ব্যবস্থাপনা ও পারফরমেন্স মনিটরিং সংক্রান্ত কার্যক্রম, বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক ও অন্যান্য অপারেশনাল কার্যক্রম আইসিবি কর্তৃক পরিচালিত হচ্ছে। বাস্তবতার নিরিখে সরকারের এ মহতী উদ্যোগ পরিচালনার ক্ষেত্রে ইক্যুইটি মডেলের পরিবর্তে সহনীয় মাত্রার সরল সুদহার সংবলিত ঋণ মডেল প্রবর্তিত হয় যা অন্ট্র্যাপ্র্যানারশীপ সাপোর্ট ফান্ড (ইএসএফ) নামে পরিচিত। বর্তমানে ইএসএফ এর মাধ্যমে যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

০১। ইএসএফ সংক্রান্ত সার্বিক চিত্র নিম্নরূপ (২৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ তারিখে):

                                                                                                                                              (কোটি টাকায়)

প্রকল্পের ধরণ EOI (সংখ্যা) মঞ্জুরী বিতরণ
আবেদন গ্রহণ শর্টলিস্টভুক্তকরণ প্রকল্প সংখ্যা অর্থের পরিমাণ প্রকল্প সংখ্যা অর্থের পরিমাণ
কৃষি ৫,০২৩ ১,৬৮৫ ১৩৫ ২৬৮.৮৩ ১৪ ২১.৫১
আইসিটি ২২ ১.৫০ ০.০
মোট ৫,০৪৫ ১,৬৯২ ১৩৭ ২৭০.৩৩ ১৪ ২১.৫১

০২। ইইএফ সংক্রান্ত সার্বিক চিত্র নিম্নরূপ ( ২৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪ তারিখে):

ক) মঞ্জুরীকৃত প্রকল্পের বিবরণঃ  
                                                                                                                                              (কোটি টাকায়)

প্রকল্পের ধরণ বাংলাদেশ ব্যাংক(২০০১-২০০৯) আইসিবি(২০০৯-বর্তমান) সর্বমোট
প্রকল্প সংখ্যা অর্থের পরিমাণ প্রকল্প সংখ্যা অর্থের পরিমাণ প্রকল্প সংখ্যা অর্থের পরিমাণ
কৃষি ২১৬ ৫৮৩.৬৮ ১,৬৮৭ ২,৮৭৩.৬৭ ১,৯০৩ ৩,৪৫৭.৩৫
আইসিটি ৩৪ ৬০.৫১ ১০৬ ১৫৭.৫১ ১৪০ ২১৮.০২
মোট ২৫০ ৬৪৪.১৯ ১,৭৯৩ ৩,০৩১.১৮ ২,০৪৩ ৩,৬৭৫.৩৭

খ) মঞ্জুরীকৃত প্রকল্পে বিতরণের বিবরণঃ 
                                                                                                                                              (কোটি টাকায়)

প্রকল্পের ধরণ বাংলাদেশ ব্যাংক(২০০১-২০০৯) আইসিবি(২০০৯-বর্তমান) সর্বমোট
প্রকল্প সংখ্যা অর্থের পরিমাণ প্রকল্প সংখ্যা অর্থের পরিমাণ প্রকল্প সংখ্যা অর্থের পরিমাণ
কৃষি ২০৯ ৫১৩.৬৬ ৭২৫ ৯৭৫.৯২ ৯৩৪ ১,৪৮৯.৫৮
আইসিটি ৩৩ ৪৬.৪০ ৭২ ৮৮.০৬ ১০৫ ১৩৪.৪৬
মোট ২৪২ ৫৬০.০৬ ৭৯৭ ১,০৬৩.৯৮ ১,০৩৯ ১,৬২৪.০৪

ESF সংশ্লিষ্ট পক্ষসমুহ ও তাদের দায়দায়িত্বঃ

১. বাংলাদেশ ব্যাংকঃ
ক) ESF এর নীতিমালা প্রণয়ন।
খ) তহবিল ব্যবস্থাপনা।
গ) প্রকল্পের পারফমেন্স মনিটরিং।
ঘ) আইসিবি এর কার্যক্রম তদারকি।

২. আইসিবিঃ
ক) EOI গ্রহণ এবং সেগুলোর সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রস্তুতকরণ।
খ) মূল্যায়নকারী প্রতিষ্ঠান হতে প্রাপ্ত প্রকল্প প্রস্তাব পুন:মূল্যায়নপূর্বক নীতিমালায় বর্ণিত প্রক্রিয়া যথাযথভাবে অনুসরণপূর্বক ঋণ মঞ্জুরি প্রদান ।
গ) প্রকল্প সংক্রান্তে প্রয়োজনীয় দলিলাদি সম্পাদন (প্রয়োজনে আইনজ্ঞের পরামর্শ অনুযায়ী) ।
ঘ) প্রকল্প সংশ্লিষ্ট ভূমি/ফ্ল্যাটের যাবতীয় কাগজপত্র/দলিলাদি সংশ্লিষ্ট মূল্যায়নকারী প্রতিষ্ঠান ও বাংলাদেশ ব্যাংক (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) এর সাথে যৌথভাবে সংশ্লিষ্ট দপ্তরসমূহে সরেজমিনে যাচাই ও উক্ত কাগজপত্র/দলিলাদি সংরক্ষণ।
ঙ) মঞ্জুরিকৃত প্রকল্পসমূহের অনুকূলে অর্থ ছাড়করণ, প্রকল্প বাস্তবায়ন সংক্রান্ত কার্যক্রম তদারকি ও অর্থ আদায়ের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মূল্যায়নকারী প্রতিষ্ঠানকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান ।
চ) বিতরণকৃত ঋণ আদায়ের লক্ষ্যে প্রকল্প বা উদ্যোক্তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ ।
ছ) মূল্যায়নকারী প্রতিষ্ঠান হতে প্রকল্পের অবস্থা সম্পর্কিত পর্যায়বৃত্ত তথ্য (Periodical Status) সংগ্রহ এবং চাহিদা মোতাবেক মন্ত্রণালয়/বাংলাদেশ ব্যাংককে অবহিতকরণ ।
জ) ESF সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আইসিবি বা বাংলাদেশ ব্যাংককে প্রতিপক্ষ করে দায়েরকৃত মামলায় আইনজ্ঞের পরমর্শ অনুযায়ী প্রতিদ্বন্দিতা/পদক্ষেপ গ্রহণ।
ঝ) প্রকল্পের পর্ষদ সভায় উপস্থিতির জন্য টিএ/ডিএ বাবদ পর্যবেক্ষকের (Observer) দাখিলকৃত বিল বিধি মোতাবেক প্রয়োজনীয় পরীক্ষা নিরীক্ষান্তে পুনর্ভরণ করা ।
ঞ) আইসিবি এতদ্‌সংক্রান্ত কাজের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের নিকট দায়বদ্ধ থাকবে ।

৩. মূল্যায়নকারী প্রতিষ্ঠানঃ
ক) সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত উদ্যোক্তার প্রকল্প প্রস্তাব গ্রহণকরতঃ প্রস্তাবিত প্রকল্পস্থল সরেজমিনে পরিদর্শন করে মূল্যায়নপূর্বক ঋণ মঞ্জুরির জন্য সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র/দলিলাদিসহ ০২(দুই) কপি প্রকল্প প্রস্তাবনা/মূল্যায়ন প্রতিবেদন ইএসএফ উইং, আইসিবিতে প্রেরণ এবং ১ (এক) কপি যথাযথভাবে সংরক্ষণ করবে। উল্লেখ্য, সরকার কর্তৃক ঘোষিত মৌজা রেট (পার্বত্য অঞ্চলে মৌজা রেট না থাকায় প্রচলিত নীতিমালা অনুযায়ী) অনুসরণে প্রকল্পের ভূমি/জমি মূল্যায়ন করতে হবে। খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ ও কৃষি খাতের যন্ত্রপাতি নির্ভর প্রকল্পের ভূমি/জমি মূল্যায়নের ক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক ঘোষিত মৌজা রেট (পার্বত্য অঞ্চলে মৌজা রেট না থাকায় প্রচলিত নীতিমালা অনুযায়ী ভূমির মূল্য) বা আইসিবিতে বিদ্যমান কৃষি বিষয়ক প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি ও মঞ্জুরি বোর্ড কর্তৃক নির্ণেয় মোট প্রকল্প ব্যয়ের ১৫% এবং যন্ত্রপাতি নির্ভর প্রকল্প ব্যতিরকে অন্যান্য প্রকল্পের জন্য ৩০% এর মধ্যে যেটি কম সেটি বিবেচিত হবে ।
খ) সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আইনজ্ঞের পরামর্শ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় দলিলাদি সম্পাদন।
গ) প্রকল্পে উদ্যোক্তার অংশের সন্তোষজনক বিনিয়োগ নিশ্চিত হয়ে ঋণের অর্থ ছাড়ের সুপারিশকরণ (প্রতি কিস্তির অর্থ ছাড়ের সুপারিশের সাথে পর্যবেক্ষকের মতামত/প্রতিবেদন সংযুক্ত করতে হবে)।
ঘ) মঞ্জুরিকৃত প্রকল্পসমূহে অর্থ বিতরণ, প্রকল্প বাস্তবায়ন মনিটরিং, অর্থ আদায়ের জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ এবং সংশ্লিষ্ট কার্যাবলী সম্পাদন।
ঙ) বিতরণকৃত ঋণ আদায়ের জন্য প্রচলিত বিধি মোতাবেক সুদ ও আসল সমন্বয় করে ঋণের কিস্তি নির্ধারণ।
চ) প্রকল্পের পর্ষদ সভা ও অন্যান্য সভায় আইসিবি এর পক্ষে দায়িত্বপালনের জন্য ০১(এক) জন উপযুক্ত কর্মকর্তাকে পর্যবেক্ষক (Observer) হিসেবে নিয়োগ দান ।
ছ) মঞ্জুরিপত্রের শর্তানুযায়ী প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে কি না সে বিষয়ে পর্যবেক্ষকের নিকট হতে মতামত ও প্রতিবেদন সংগ্রহ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ ।
জ) প্রকল্প/প্রকল্পসমূহের বাস্তবায়ন সংক্রান্ত প্রতিবেদন প্রতি ত্রৈমাসিকে আইসিবিতে প্রেরণ করতে হবে।
ঝ) আদায়কৃত অর্থ অনতিবিলম্বে আইসিবিতে প্রেরণ ।
ঞ) প্রকল্পের বিরূদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের ক্ষেত্রে আইসিবিকে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান।
ট) প্রকল্পের অনুকূলে ঋণ সহায়তার ১ম কিস্তির অর্থ ছাড়করণের পর সংশ্লিষ্ট কোম্পানি ও উদ্যোক্তাদের তথ্য বাংলাদেশ ব্যাংকের ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরোতে (CIB) রিপোর্টকরণ ।
ঠ) বিতরণকৃত ঋণ হিসাব সংরক্ষণের পাশাপাশি বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক অনুসৃত নিয়ামাচার অনুযায়ী এ ঋণকে শ্রেণীবিন্যাসকরণ এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের সিআইবিতে রিপোর্টকরণ । তবে বিরুপভাবে শ্রেণীকৃত ঋণের জন্য কোন প্রভিশন রাখতে হবে না ।
ড) মূল্যায়নকারী প্রতিষ্ঠান এতদ্‌সংক্রান্ত কাজের জন্য আইসিবি এর নিকট দায়বদ্ধ থাকবে ।

জনবল:

ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি) এর অনুমোদিত জনবল কাঠামো অনুযায়ী ইইএফ উইং, আইসিবি- তে ২৯.০২.২০২৪ তারিখে বিভিন্ন পর্যায়ের সর্বমোট ৭৯ (ঊনআশি) জন কর্মকর্তা ও কর্মচারী কর্মরত রয়েছে। এছাড়া, ‘নো ওয়ার্ক নো পে ভিত্তিতে’ আরও ১৩ (তের) জন কর্মচারী কর্মরত রয়েছে।